2017/04/30

আপডেইট হয়েছে :  

স্বরণিকা

সর্বশেষ বিষয়

আমাদের তরফ হতে সহযোগিতা

গুজরাটে গরুর গোশত রাখার দায়ে ৩ বছর জেল, ১০ হাজার টাকা জরিমানা

 

নবসারীর দেভধা গ্রামের বাসিন্দা রফিক খলিফার বিরুদ্ধে প্রাণী প্রোটেকশন অ্যাক্ট অনুচ্ছেদের ৬(১), (২), (৩), ৮(৪) এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪২৯ ও ১১৪ ধারা অনুসারে মামলা দায়ের করা হয়। রফিকের কাছে ৪০০০ টাকা মূল্যের ৪০ কেজি গরুর গোশত পাওয়া যায়। পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদের মুখে রফিক খলিফা জানায় তিনি হানিফ মনিয়ত নামে এক কসাইয়ের কাছ থেকে এই গোশত কিনেছেন। এই মামলায় তাকেও গ্রেফতার করা হয়। যদিও প্রমাণের অভাবে আদালত তাকে বেকসুর খালাস করে দেয়।

 

এই মামলায় দাখিল করা পুলিশি চার্জশিটে ৬ জনের নাম সাক্ষী হিসেবে নথিভুক্ত করা হয়। এদের মধ্যে দুই জন গো-রক্ষকও রয়েছে, এরাই রফিক খলিফাকে আটক করেছিল। এছাড়াও ফরেনসিক সায়েন্স ল্যাবরেটরি এক কর্মকর্তা, দুই পুলিশ কর্মী এবং অন্য এক ব্যক্তিকে পুলিশ সাক্ষী করে।

 

শুক্রবার রফিক খলিফার সাজা ঘোষণা করে অতিরিক্ত বিচার বিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেট (প্রথম শ্রেণি) সি ওয়াই ব্যাস বলেন, ‘গরু সমাজের একাংশের অনুভূতির সঙ্গে সংযুক্ত, এমতাবস্থায় এমন এক দৃষ্টান্ত পেশ করার প্রয়োজন যাতে অভিযুক্ত পুনরায় এ ধরণের অপরাধ না করে। অভিযুক্তকে কারাগারে পাঠানো হলে এতে সমাজের অন্য মানুষ প্রভাবিত হবে এবং তারা এ ধরণের অপরাধ থেকে নিবৃত্ত হবে।’

 

ডিফেন্স কৌঁসুলি পি ডি প্যাটেল বলেন, ‘উচ্চ আদালতে এই রায়কে চ্যালেঞ্জ করা হবে।’ #

 

এমএএইচ/জিএআর/৮

 

sharethis গুজরাটে গরুর গোশত রাখার দায়ে ৩ বছর জেল, ১০ হাজার টাকা জরিমানা

ارسال یک پاسخ

ایمیل شما منتشر نمی شود.
আবশ্যকীয় বিষয়গুলো * চিহৃ দ্বারা নির্দিষ্ট করা হয়েছ।.

*


− یک = 2

আমাদেরসাথেযোগাযোগ| RSS | সাইটেরভূমিকা

এইসাইটেরসর্বস্বত্ব ‘ইসলাম১৪’ এরজন্যসংরক্ষিত; তবেরিফারেন্সসহকোনকিছুবর্ণনাকরতেপারেন।